কলঙ্কিনী ! সন্তানকে বিষ গেলায়, নিজেও খায় যে প্রজাপতি

By: Writer in Residence

August 5, 2021

Share

ছবি সৌজন্যে: Google

আশ্চর্য এর জীবন। গলগল করে বিষ গিলেও মরবে না। বিষের জ্বালা নেই, বরং বিষাক্ত তরল এর দেহের পুষ্টি। একরত্তির প্রজাপতির দেহে এমনই আছে ক্ষমতা।

এ যেন কলঙ্কিনীর জীবন। যে লোকলজ্জার ভয় থেকে বাঁচতে বিষ পান করেও মরেনি। গরল শুষে নেওয়ার আশ্চর্য ক্ষমতা তাকে ফের সবার সামনে হাজির করেছিল। সেরকমই এক প্রজাপতি মোনার্ক বাটারফ্লাই। বিষ গিলেই আনন্দ পায় এই প্রকৃতি সুন্দরী।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ম্যাগাজিন ‘নেচার’ এই বিষ গেলা প্রজাপতির বিষয়ে গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছে। এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যে সব উদ্ভিদের ঘন দুধের মতো বিষ বের হয় সেই তরল চকচক করে শুষে নেয় মোনার্ক বাটারফ্লাই। এমন বিষাক্ত তরলকে আশ্চর্যজনকভাবে নিজের দেহের সঙ্গে খাপ খাইয়েছে এই প্রজাতির প্রজাপতি।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন যদিও অনেক ক্ষেত্রে এই ধরণের তরল মানুষের দেহে বিষক্রিয়া ঘটাতে পারে। কিন্তু মোনার্ক বাটারফ্লাই এতেই খুশি।

নিজের উদ্যোগে তৈরি সমাধি বাক্সের উপরে বিছানা পেতে ঘুমিয়েছেন অশোক ঘোষ

অশোক ঘোষ ।। ছবি সৌজন্যে : Google

কতটা মারাত্মক গুল্ম বা উদ্ভিদের তরল বিষ? গবেষণায় উঠে এসেছে, কোনও মানুষের দেহে বেশি পরিমানে ঢুকলেই তার হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা প্রবল। যে কোনও মুহূর্তে অবশ হয়ে যাবে স্নায়ু। প্যারালাইসিসে মৃত্যু হবেই।

উদ্ভিদ থেকে বের হওয়া এমনই বিষাক্ত তরল মাখানো তীর দিয়ে হাজার হাজার বছর ধরে আদিবাসীরা শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে। শিকার করে আসছে। তারাই জানে এই বিষের কিছু প্রতিষেধক।

মিল্কউইড নিয়ে বিভিন্ন রাসায়নিক গবেষণা করা ও বিষবিজ্ঞানীরা হতবাক হয়ে যাচ্ছেন মোনার্ক বাটারফ্লাইয়ের ক্ষমতা দেখে। দেখা যাচ্ছে বিষাক্ত তরল পান করেই সুস্থ থাকতে পারে এই প্রজাপতির সন্তানেরা। বিষ গুল্মতেই তারা ডিম পাড়ে।

নেচার জানিয়েছে,বিশেষ জিনগত পরিবর্তনের ফলে মোনার্ক বাটারফ্লাই পেয়েছে বিষ হজমের ক্ষমতা। এমনিতে মিল্কউইড রস উদ্ভিদের প্রতিরক্ষা কবচ হিসেবে কাজ করে। পাখি ও কীটপতঙ্গের হামলা থেকে রক্ষা করে। কিন্তু মোনার্ক প্রজাপতির কিছুই হয়না।

বিজ্ঞানীরা দেখেছেন, দিনভর শুধু বিষাক্ত তরল খুঁজে বেড়ায় মোনার্ক বাটারফ্লাই। যেখানেই পায় সেখানেই তার প্রিয় আস্তানা। সেই বিষাক্ত উদ্ভিদের

গায়ে তৈরি করে আস্তানা। নারী প্রজাপতির ঘর আলো করে আসা লার্ভা সন্তান মাতৃদুগ্ধের মতো সাদা ঘন মিল্কউইড পান করে। সন্তানের মুখে বিষ ঢেলে দিতে কোনও খামতি নেই তার।

তবে এ তো মোনার্ক বাটারফ্লাইয়ের কাছে বিষ নয়। মানুষের কাছে যা বিষ, সেটাই যে মোনার্কের কাছে অমৃতসুধা!

সৌজন্য:

  • Genome editing retraces the evolution of toxin resistance in the monarch butterfly: nature magazine
  • ‌How Monarch Butterflies Evolved to Eat a Poisonous Plant: Scientific American

More Articles